news

‘দুটি রাজনৈতিক দলে যোগ দেওয়ার প্রস্তাবও ফিরিয়ে দিয়েছি’, করফাঁকি প্রসঙ্গে কী বললেন সোনু সুদ

#মুম্বই: কর ফাঁকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে অভিনেতা সোনু সুদের (Sonu Sood) বিরুদ্ধে। সেই মর্মে অভিনেতার অফিস এবং বাড়িতে হানা দিয়েছিল আয়কর (Income Tax) বিভাগ। যদিও সোনু সুদ কর ফাঁকি দেওয়ার অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। তাঁর দাবি, তিনি দেশের একজন আইন মেনে চলা নাগরিক। এক সংবাদমাধ্যমের কাছে সোনু জানিয়েছেন, তাঁকে দুটি রাজনৈতিক দল থেকেও রাজ্যসভার সদস্য হওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু মানসিকভাবে তিনি রাজনীতিতে যোগ দেওয়ার জন্য প্রস্তুত নয় বলে জানান।

সংবাদমাধ্যমের কাছে সাক্ষাৎকারে সোনু সুদ (Sonu Sood) বলছেন, “যা যা নথিপত্র চাওয়া হয়েছে আমরা সব দিয়েছি। যা প্রশ্ন করা হয়েছে সব উত্তর আমি দিয়েছি। আমি আমার কাজ করেছি আর ওনারা ওনাদের কাজ করেছেন। যেসব প্রশ্ন তাঁরা তুলেছিলেন সব উত্তর আমরা দিয়েছি এবং কাগজপত্র দেখিয়েছি। এটা আমার কর্তব্য। আমরা এখনও বিভিন্ন কাগজপত্র দেখাচ্ছি। এটা এই পদ্ধতির ই একটা অংশ।”

আইন অমান্য করার অভিযোগ উঠেছে অভিনেতার বিরুদ্ধে। কিন্তু সোনু সুদ সেই অভিযোগ সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছেন। ২০ কোটি টাকার কর ফাঁকি দেওয়ার অভিযোগ তাঁর বিরুদ্ধে। গত বছর লকডাউনে মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছিলেন অভিনেতা। আয়কর বিভাগের অভিযোগ, সোনু সুদ ১৮ কোটি টাকা ডোনেশন হিসেবে তুলেছিলেন। কিন্তু তার মধ্যে মাত্র ১.৯ কোটি টাকা ত্রাণের কাজে তিনি লাগিয়েছেন।

সোনু সুদ বলছেন, “এটা সত্যিই অবাক করার মতো। ত্রাণের জন্যে যে অর্থ সংগ্রহ করা হয়েছিল তা শুধু নাগরিকদের থেকে তোলা নয়। তার অনেকটা ছিল আমার নিজের পারিশ্রমিক যা আমি বিভিন্ন ব্র্যান্ড এনডোর্সমেন্ট থেকে পাই। আমি ত্রাণ করেছিলাম যাতে কয়েকটা জীবন বাঁচে। আমার মেইল আইডিতে ৫৪ হাজার আনরেড মেইল রয়েছে। হোয়াটসঅ্যাপ ফেসবুক এবং টুইটারে রয়েছে হাজার হাজার মেসেজ। ১৮ কোটি টাকা খরচ হতে ১৮ ঘন্টা লাগবে না। কিন্তু আমি নিশ্চিত করেছি যাতে সমস্ত টাকা সৎ কাজে ব্যবহৃত হয়।”

আরও পড়ুন- পাহাড়ে ‘কিসমিস’-এর শ্যুটিং করলেন দেব! তৃণমূলে বাবুলের যোগদান নিয়ে কী বললেন অভিনেতা

কিছুদিন আগে স্কুলের মেন্টরশিপের জন্য দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের সঙ্গে দেখা করেন অভিনেতা (Sonu Sood)। তারপর থেকেই জল্পনা শুরু হয়, এই রাজনৈতিক দলে কি যোগ দিচ্ছেন তিনি? আর তারপরেই আয়কর বিভাগ হানা দেয় তার বাড়িতে। সোনু বলছেন, “আমি আম আদমি পার্টিতে যোগ দিচ্ছি না। আপনি কর্ণাটক, গুজরাট বা যে কোনও রাজ্যে আমায় ডাকুন আমি ম্যাজিকের মতো পৌঁছে যাব। আমি কংগ্রেস ও বিজেপি শাসিত রাজ্যের সঙ্গেও কাজ করেছি।”

প্রসঙ্গত, করোনা কাল (Corona) ও লকডাউনের (Lockdown) পরে সোনু সুদের পরিচয় শুধু অভিনেতাই নয়। লোকহিতৈষীর তকমাও পেয়েছেন তিনি। লকডাউনের প্রথম থেকেই মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন তিনি। হাজার হাজার পরিযায়ী শ্রমিককে ঘরে ফিরিয়েছেন সোনু সুদ। কখনও বাস, কখনও গোটা একটা ট্রেন আবার কখনও গোটা একটা বিমান ভাড়া করে পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফিরিয়েছিলেন তিনি। অন্যান্য দেশে আটকে পড়া পড়ুয়াদেরও দেশে ফিরিয়েছেন তিনি। যে কোনও সমস্যা নিয়ে করোনা কালে মানুষ সোনু সুদের কাছে সাহায্যের জন্য পৌঁছে গিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button